1. bangladeshbartatelevision@gmail.com : admin :
  2. ridoyhasanjoy@gmail.com : Reporter-1 :
  3. journalistrhasan@gmail.com : Reporter-2 :
  4. bangladeshbarta1@gmail.com : Reporter-3 :
  5. abdullah957980@gmail.com : Ramjan Bhuiyan : Ramjan Bhuiyan
প্রধান খবর

নেত্রকোনার শতবর্ষী নারী স্নেহলতা করের মানবেতর জীবন যাপন

  • Thursday, January 28, 2021
  • 27 বার পড়া হয়েছে

জুনাইদ আল হাবীব,বারহাট্টা প্রতিনিধি।।

স্নেহলতা কর ৯৯ বছর বয়সী বৃদ্ধা মা ও তার একমাত্র
বিধবা মেয়ে এভাবেই কষ্ট করে জীবন যাপন করে
যাচ্ছেন। নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া থানার দুওজ
ইউনিয়নের গৃদান টেংগা গ্রামের স্নেহলতাকর ও তার
বিধবা মেয়ে জ্যোতি রানী দত্ত এই আধুনিকতার যুগে এক
মানবেতর জীবন যাপন করছেন।
বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ, নেত্রকোনা জেলা শাখার
আমরা কয়েকজন এই মায়ের বাড়িতে গিয়েছিলাম।
(স্নেহলতাকর ৯৯) ও তার বিধবা মেয়ে (জ্যোতি দত্ত ৬৫)
অন্যের বাড়িতে, খড় কুটির চালা ঘরে বসবাস করেন।
স্নেহলতাকর ৩ বছর আগে গ্রামের পাড়ায় পান বিক্রি
করে কোনোমতে সংসার চালাতেন। তিনি অসুস্থ হয়ে
যাওয়ার পরে আর ঘর থেকে উঠতে পারেন না। ভুগছেন
বিভিন্ন অসুখে নেই কোনো চিকিৎসার ব্যবস্থা।
এই কনকনে মাঘ মাসের শীতে খড়ের ভাঙ্গা বেড়ার ফাক দিয়ে বইছে শীতল বাতাস যা অসয্যনীয়, নেই তার শীত নিবারণ করার মতো
কম্বল বা ক্ষ্যাতা, শুয়ে থাকেন পাতলা একটা ক্ষ্যাতার
বিছানায়।
স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিদের অবহেলার কারণে আজ স্নেহলতাকর তার ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত।সরকারের দেওয়া শীতবস্ত্র থেকে তিনি বঞ্চিত,হাজার হাজার কম্বল উপহার দিলেও (স্নেহলতা কর)এর কপালে জুটলো না একটি কম্বল।সরকার হাজার হাজার অসহায় মানুষের বাসস্থানের ব্যবস্থা করে দিলেও স্থানীর সরকার প্রতিনিধিদের ও স্থানীয় প্রশাসনের অবহেলা এবং সঠিক দায়িত্ব পালনে ব্যর্থতার জন্য এই অসহায় মায়ের কপালে জুটলো না কোনো বন্দোবস্তের ব্যবস্থা।
বর্তমান সরকার এবছর ৭০ হাজার গৃহহীন পরিবারকে
বাসস্থানের ব্যবস্থা করেছেন।
৭০ হাজারের মধ্যে কী (স্নেহলতাকর ৯৯) তিনি পাওয়ার যোগ্য না?
নিশ্চয়ই ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে সরকারি ঘরগুলো
কোথায় দিবে এমন কোনো লিষ্ট ছিলো। কিন্তু এই
সরকারি ঘরগুলো কোথায় গেলো সেটাই আমাদের প্রশ্ন?
আমি আজ নিজের চোখে বৃদ্ধার আর্তনাদ গুলো শুনলাম,
আপনি যদি উপস্থিত থাকতেন তাহলে বলতেন,
বাংলাদেশ সরকারের যদি ১টি অনুদান থাকতো তাহলে
স্নেহলতাকরের পাওয়ার দরকার ছিলো।
একটা বয়স্ক বাতা, বিধবা বাতা কার্ড, পেতে লাগে
(৫০০০+ বা তার-ও অধিক ৳) সরকারি কোনো অনুদান
পেতে দেওয়া লাগে স্হানীয় পাতি নেতাকে কারি
কারি ঘুষ।
আমরা আমাদের পক্ষ থেকে সাধ্যমতো কিছু উপহার দিয়েছি।

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

MD

Customized BY NewsTheme