1. bangladeshbartatelevision@gmail.com : admin :
  2. ridoyhasanjoy@gmail.com : Reporter-1 :
  3. journalistrhasan@gmail.com : Reporter-2 :
  4. bangladeshbarta1@gmail.com : Reporter-3 :
  5. abdullah957980@gmail.com : Ramjan Bhuiyan : Ramjan Bhuiyan
প্রধান খবর
গুরুদাসপুরে মাদক, সন্ত্রাস ও সাইবার ক্রাইম রোধে মতবিনিময় সভা নাটোরে চাঁদার জন্য আঙ্গুলের নখ উপড়ে ফেললো যুবলীগ : আটক ২ সিংড়ায় ব্যবসায়ীকে মারপিটে এএসআইয়ের বিরুদ্ধে মানববন্ধন রহনপুর রেলস্টেশন পরিদর্শন করলেন নেপালের রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাবেক মেয়র মিরাজুল ইসলাম প্রামাণিক পাঁচবিবিতে দুদু এমপির রোগ মুক্তির কামনায় পৌর আওয়ামীলীগের দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে গাঁজাসহ একজন গ্রেফতার নাচোলে অভিনব কৌশলে মাদক পাচারকালে ডিএনসির হাতে ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার ২ রাজশাহীতে সেনা সদস্য আত্মহত্যায় বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২ শিক্ষিকা গ্রেপ্তার গফরগাঁওয়ে গরু চোর ও পাঁচ জুয়াড়ি আটক

জামালপুরের কেন্দুয়ায় মির্জা পরিবারের শাস্তির দাবীতে শ্লোগান

  • রবিবার, ৩১ জানুয়ারী, ২০২১

নবী মাহমুদ,জেলা-প্রতিনিধি:

জামালপুর সদর উপজেলার কেন্দুয়া ইউনিয়নের পন্ডিত পাড়া গ্রামে, মাদারগঞ্জ বালিজোড়ী থেকে আসা মির্জা তাইজ উদ্দিনের পরিবারটি দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে, জমি কিনে, থাকতে শুরু করে। পন্ডিত পাড়ার সহজ সরল, মাঝি জনগোষ্ঠী মানুষদের তাদের প্রভাবশালী, মির্জা পরিবারের ভয় দেখিয়ে, নানা ভাবে শুরু থেকেই নিযার্তন করে আসছে বলে, স্থানীয় এলাকাবাসী জানান।

স্থানীয় এলাকাবাসী আরো জানান- কেন্দুয়া কালিবাড়ী বাজারের দরিদ্র মাছ ব্যবসায়ী মৃত হারুনের ছেলে এতিম আমির হোসেনের (২০) নামে মামলা করেও, শান্ত হয়নি মির্জা পরিবারটি। শনিবার সকালে তাকে রশি দিয়ে, হাত-পা বেধেঁ লোহার রড দিয়ে, বেদম ভাবে মারপিট করে মির্জা তাইজ উদ্দিনের ছেলে মির্জা জিয়াউল হক জিয়া ও মির্জা রৌফ। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও জামালপুর সদর থানা পুলিশ তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে, সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। এ সময় আমিরের হাত ও পায়ে বিষন ভাবে আঘাত প্রাপ্ত হয়। পরে মির্জা জিয়া ও রৌফকে সদর থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

এ বিষয়ে সদর থানার এস আই আজগর আলী জানান- আমরা গিয়ে আহত অবস্থায় আমিরকে উদ্ধার করে, অটো যুগে, সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন মামলা দায়ের হয়নি।

ইউপি সদস্য আলাল উদ্দিন জানান- মির্জা পরিবারের হাত থেকে রক্ষা করে, আমিরকে জামালপুর সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। পরে, স্থানীয় গ্রাম বাসী এ বিষয়ে মামলা করতে সদর থানায় গিয়েছিল।

উক্ত ঘটনা সম্পর্কে জিয়া ও তার পরিবার ভিন্ন মত পোষণ করেন। তারা বলেন আমির আমার বাসায় চুরি করার জন্য এসেছিল। তাই তার সাথে আমাদের কথা কাটাকাটি হয়েছে। তবে এই ঘটনায় তারা কোন মামলা দায়ের করেনি।

উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগসহ মৎসজীবী লীগ এবং অন্য অঙ্গ সহযোগী সংগঠনসহ দল মত সকলেই মির্জা পরিবারের শাস্তির দাবীতে শ্লোগান শ্লোগানে রাস্তায় নেমে আসে।

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

MD

Customized BY NewsTheme