1. bangladeshbartatelevision@gmail.com : admin :
  2. ridoyhasanjoy@gmail.com : Reporter-1 :
  3. journalistrhasan@gmail.com : Reporter-2 :
  4. bangladeshbarta1@gmail.com : Reporter-3 :
  5. abdullah957980@gmail.com : Ramjan Bhuiyan : Ramjan Bhuiyan

তারাকান্দায় সর: প্রাথ: বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

  • শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

আবুল হাসান হাশেম,তারাকান্দা(ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে উপজেলার কাকুরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়েরের ঘটনা ঘটেছে।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তারাকান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল খায়ের।

কাকুরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উসমান গনি (৫৫) ৭নং রামপুর ইউনিয়নের মৃত হাসেন আলী তালুকদারের ছেলে বলে জানা গেছে।

থানায় দায়ের কৃত মামলা থেকে জানা গেছে, রামপুর ইউনিয়নের মৃত জহুর আলী তালুকদারের পুত্র মো:সাতাব উদ্দিন বাদী হয়ে যে মামলাটি তারাকান্দা থানায় রজু করেছেন তাতে প্রধান শিক্ষক উসমান গনি ২ নং আসামী।

বাদীর দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, গত ২৫/১/২০২১ রোজ সোমবার দুপুরে উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের শিমুলতলী বাজারের পাশে বাদী সাতাব উদ্দিন গং স্বত্বদখলিয় জমিতে কাজ করতে গেলে প্রধান শিক্ষক উসমান গনি গংদের হাতে হামলার স্বীকার হন। বাদী এ সময় উল্লেখ করেন, আসামী উসমান গনি গং এসময় বেআইনি জনতাবদ্ধে দেশীয় অস্ত্রসহ বাদীর উপর হামলা করেন। এতে বাদীর ২ পুত্র গুরুতর আহত হন। উক্ত ঘটনা থেকেই মামলার উদ্রেক হলে তাতেই জড়ালেন কাকুরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উসমান গনি।

এ ব্যাপারে মামলার বাদী আরও জানান, কাকুরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক উসমান গনি দাঙ্গাবাজ এবং কলহ প্রিয় একজন লোক। ইতিপূর্বে তিনি কাকুরা ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার ৪ তলা ভবন নির্মাণের সময় বাঁধা প্রদান করেছিলেন।

এই ব্যাপারে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো: আব্দুল জলিল আকন্দ উসমান গনি সহ ৫ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছিলেন যার নং-৯১। এছাড়াও তারাকান্দা থানায় নাশকতার মামলায় এজাহার ভূক্ত মামলা নং-৪(১২)২০১৮ এর আসামী হওয়ায় দীর্ঘদিন স্কুলে অনুপস্থিত থেকেছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এ ব্যাপারে কাকুরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক উসমান গনির সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমি ময়মনসিংহে থাকি। আমাদের স্বত্বদখলীয় জমিতে সাতাব উদ্দিন গং অনধিকার প্রবেশ করলে আমার ছোট ভাই (উমর ফারুক উরফে মজিবুর) ৫২-র সাথে ঝগড়ার সূত্রপাত হয়। এই জমির সকল কাগজ পত্রই আমাদের আছে। জমাখারিজও অছে। আমরা ৫০ বছর যাবৎ এই জমি ভোগদখল করছি।

এ ব্যাপারে তারাকান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল খায়ের জানান, মামলাদায়েরের বিষয়টি সঠিক। আইনানুগ প্রক্রিয়া চলমান আছে।

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

MD

Customized BY NewsTheme